এপ্রিল ১৯, ২০২৪ ৫:৫৪ অপরাহ্ণ

সাংস্কৃতিক অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তিকে ক্ষমতায় আনতে হবে

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা (০১ আগষ্ট):সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তৃণমূল পর্যায়ে সংস্কৃতি চর্চা প্রসারের পাশাপাশি সংস্কৃতি ক্ষেত্রে যথেষ্ট অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় ইতোমধ্যে ৬৪ জেলায় সাহিত্যমেলা আয়োজন করা হয়েছে। তাছাড়া গত ২৭ জুলাই প্রথমবারের মতো উপজেলা সাহিত্যমেলার আয়োজন করা হয়েছে। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নেতৃত্বে তৃণমূল পর্যায় থেকে প্রতিভা অন্বেষণে জাতীয় সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০২৩ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সবমিলিয়ে সংস্কৃতি ক্ষেত্রে এক নবজাগরণ সৃষ্টি হয়েছে। এ সাংস্কৃতিক অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তিকে ক্ষমতায় আনতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী আজ বিকালে রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত ‘দেশব্যাপী প্রতিভা অন্বেষণ’ শীর্ষক ‘জাতীয় সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০২৩’ এর পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ স্বাধীনতা আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী রাজনৈতিক দল। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলেই দেশে-বিদেশে আমাদের হাজার বছরের ঐতিহ্যবাহী ও সমৃদ্ধ বাঙালি সংস্কৃতি যথেষ্ট সমাদৃত হয়েছে এবং প্রচার-প্রসার ঘটেছে। সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের নেতৃত্বে সাংস্কৃতিক অগ্রযাত্রা ও উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে নবীন ভোটারসহ সকলকে নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার আহবান জানাই।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন একাডেমির সচিব সালাহউদ্দিন আহাম্মদ।

উল্লেখ্য, জেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় ৬৪ জেলা থেকে ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকারী এবং ঢাকা মহানগর থেকে শুধু ১ম স্থান অধিকারী সহ মোট ১৩৬৫ জন প্রতিযোগিকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে জাতীয় সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০২৩। পঞ্চগীতিকবির গান, লোকসঙ্গীত, দেশাত্ববোধক গান, সাধারণ নৃত্য, শাস্ত্রীয় নৃত্য, একক আবৃত্তি এবং একক অভিনয় সহ মোট সাতটি বিভাগের আওতায় ২১ টি শাখায় চূড়ান্তভাবে সর্বমোট ৬৩ জন প্রতিযোগী বিজয়ী হয়।

প্রতিমন্ত্রী পরে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় সংগীত, আবৃত্তি ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে সিলেট অঞ্চলের তিন গুণী শিল্পী (আধ্যাত্মিক সাধক ও বাউল সুফী আরকুম শাহ, মরমি বাউল ও গীতিকার কামাল পাশা এবং বাউল সাধক দুর্বিন শাহ) স্মরণে ‘বাংলাদেশ সংস্কৃতি ফোরাম’ আয়োজিত আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন।

Facebook
Twitter
WhatsApp
Pinterest
Email
Print

সম্পর্কিত

২৮ তম ডিস্ট্রিক্ট কাউন্সিল ও ডিজি টিম সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

২৮ তম ডিস্ট্রিক্ট কাউন্সিল ও ডিজি টিম সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

ঢাকা(২২ অক্টোবর): মনোমুগ্ধকর এক জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল লিও জেলা ৩১৫বি১,বাংলাদেশ এর ক্লাব অফিসার্স জয়েন্ট ইন্সটলেশন প্রোগ্রাম...

স্বপ্নবিকাশ কলাকেন্দ্র কতৃক বর্ষা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান “২০২৩”অনুষ্ঠিত

স্বপ্নবিকাশ কলাকেন্দ্র কতৃক বর্ষা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান “২০২৩”অনুষ্ঠিত

ঢাকা(২৯ জুলাই):বাংলাদেশ মহিলা সমিতির ড. নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তনে বিকেল ৫.৩০ ঘটিকায় স্বপ্নবিকাশ কলাকেন্দ্র কর্তৃক "বর্ষার মেঘমালা" শিরোনামে বর্ষার নিরন্তর অবগাহনে...

৬৫ তম আন্তর্জাতিক লিও দিবস উদযাপন

৬৫ তম আন্তর্জাতিক লিও দিবস উদযাপন

ঢাকা(৭ডিসেম্বর): ৫ ডিসেম্বর লিও ডিস্ট্রিক্ট ৩১৫ এ১ উদ্যোগে ৬৫ তম আন্তর্জাতিক লিও দিবস উপলক্ষে এক বিশাল র‍্যালীর আয়োজন করা হয়।র‍্যালীটি...